1. admin@dainikshatakantha.com : dainikshatakantha :
বুধবার, ১৯ মে ২০২১, ১২:১৩ পূর্বাহ্ন

ঝালকাঠিতে আবারো পানি বৃদ্ধি, অরক্ষিত বেড়ি বাঁধ ভাঙছেই, পানি ঢুকে পড়েছে ৫০ গ্রামে

  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ২৮ মে, ২০২০
  • ২৫১ বার পড়া হয়েছে
ঝালকাঠি: পানির তোড়ে ভাটারাকান্দা বেড়ি বাঁধের আংশিক ক্ষতি।

কে এম সবুজ
ঝালকাঠিতে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ায় আবারো বাড়তে শুরু করেছে নদীর পানি। সুগন্ধা ও বিষখালী নদীতে স্বাভাবিকের চেয়ে তিন-চার ফুট পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় তলিয়ে গেছে ফসলের মাঠ। বিষখালী নদীর অরক্ষিত ভাঙা বেড়ি বাঁধটি আবারো ভাঙতে শুরু করেছে। পানির তোড়ে দুইদিনে নতুন করে আরো এক কিলোমিটার ভেঙেছে। ভাঙা অংশ দিয়ে পানি প্রবেশ করে ৫০ গ্রামের মানুষের বসতঘর তলিয়ে গেছে। পানি ঢুকে পড়েছে জেলার চার উপজেলার নদী তীরের বাসিন্দাদের ঘরে। ঝড় ও জলোচ্ছাস আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন নদী তীরের বাসিন্দারা। স্বাভাবিক জোয়ারের পানিতে ডুবে যাচ্ছে ফসলের ক্ষেত, বসতঘর ও মাছের ঘের।
নদী তীরের বাসিন্দারা জানান, জেলার চার উপজেলার শতশত হেক্টর জমির ফসল, বীজতলা পানির নিচে তলিয়ে গেছে। সুগন্ধা তীরবর্তী ঝালকাঠি সদরের দেউরী, কিন্তাকাঠি, ভাটারাকান্দা, নলছিটির উপজেলার নাচনমহল, ভবানিপুর, হদুয়া, শহরের পুরানবাজার, মল্লিকপুর থেকে দপদপিয়া এবং বিষখালী তীরবর্তী রাজাপুরের বড়ইয়া ও কাঁঠালিয়া উপজেলার শৌলজালিয়া, আমুয়া, পাটিখালঘাটা ২০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে।
কৃষকরা জানান, আউশের বীজতলাসহ লতাকৃষি নিমজ্জিত রয়েছে। বীজতলার ব্যাপক ক্ষতি আশঙ্কা করছেন কৃষকরা।
ঝালকাঠির কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. ফজলুল হক বলেন, ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ১৭ কোটি ১৫ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। এর মধ্যে তিন কোটি টাকার ফসলের ক্ষতি হয়েছে। এই ক্ষতি পুষিয়ে ওঠার আগেই আবারো নদীর পানি বেড়ে গেছে। যেটুকো ফসল ভালো ছিলো, তাও নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
সর্বস্বত্ত্ব © দৈনিক শতকন্ঠ - ২০২১ কর্তৃক সংরক্ষিত।
Theme Customized By BreakingNews