উগ্রবাদী সংগঠন ইসকন শুধু মুসুলমান নয়, হিন্দুদের জন্যও ক্ষতিকারক ——নেছারাবাদী হুজুর

0
137
সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষা কমিটি
ঝালকাঠিতে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষা কমিটির উদ্যোগে আয়োজিত সভায় বক্তৃতা করেন নেছারাবাদী হুজুর।

স্টাফ রিপোর্টার
ঝালকাঠি নেছারাবাদ মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা মরহুম হযরত কায়েদ সাহেব হুজুরের একমাত্র সাহেবজাদা আমিরুল মুছলেহিন মাওলানা মো. খলীলুর রহমান নেছারাবাদী বলেছেন, উগ্রবাদী সংগঠন ইসকন শুধু মুসুলমানদের শত্রু নয়, সমগ্র হিন্দুদের জন্যও ক্ষতিকারক। সরাসরি ইসরাইলি গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের অর্থে পরিচালিত ইসকনের প্রধান কাজ হচ্ছে সমাজে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করা। তাই সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষা, ধর্মীয় অনুভূতি অক্ষুন্ন রাখা ও উগ্রবাদের বিষবৃক্ষ উৎপাটন করে সকল ধর্মপ্রাণ সৃষ্টি কর্তায় বিশ্বাসী মানুষকে শান্তির ছায়াতলে বসবাসের উপযুক্ত পরিবেশ গড়ে তুলতে সচেষ্ট থাকতে হবে। তিনি আরও বলেন, তথাকথিত সনাতন ধর্মের মুখোশধারী উগ্রবাদী সংগঠন “ইসকন” কর্তৃক ঝালকাঠিতে বিভিন্ন অপতৎপরতা, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের পায়তারা ও কয়েকটি মসজিদ ও মাদ্রাসার নিকটতম স্থানে উগ্রবাদী ষড়যন্ত্র বাস্তবায়নে মন্দিরের নামে আড্ডা খানা স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে যা প্রতিহত করা হবে। ঝালকাঠি সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষা কমিটির উদ্যোগে সাম্প্রদায়িক ও উগ্র সংগঠন “ইসকন” এর ষড়যন্ত্র থেকে পরিত্রাণের নিমিত্তে আলোচনা সভা এবং দোয়া অনুষ্ঠান সোমবার কৃষ্ণকাঠি খামারবাড়ি সড়কে দারুস সালাম জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন আমীরুল মুছলিহীন মাওলানা মুহাম্মদ খলিলুর রহমান নেছারাবাদী হুজুর। জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট ইউসুফ আলী মোল্লার সভাপতিত্বে অন্যদেও মধ্যে বক্তৃতা করেন পৌর কাউন্সিলর দুলাল হাওলাদার। এসময় বিভিন্ন এলাকার বিপুল সংখ্যক ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা উপস্থিত ছিলেন।
প্রধান অতিথির বক্তৃতায় নেছারাবাদী হুজুর আরও বলেন, ইসকন কোন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান না, এটা উগ্রবাদী সংগঠন। সনাতন ধর্মের মুখোশ পড়ে সনাতন ধর্মের ভাইদের সাথে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করার এক জাল পেতেছে। আন্তর্জাতিকভাবে মুসলমানদের ঈমান হারা করার যে ষড়যন্ত্র চলছে ইসকন তারই একটা সংগঠন। ঝালকাঠি শহরের খামারবাড়ি সড়কের ইসকন মন্দির স্থাপন হচ্ছে, অথচ তা জেলা প্রশাসন, পুলিশ বিভাগ, পৌর মেয়রসহ প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ, সুশীল সামজ কেউই জানেন না। তাদের চোখে ধুলো দিয়ে ইসকন মন্দির নির্মাণ কাজ দেশের মধ্যে আরেকটি সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা সৃষ্টির চেষ্টা। ঝালকাঠিতে এধরনের উগ্রবাদীদের স্থান দেয়া হবে না। বক্তৃতা শেষে জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট ইউসুফ আলী মোল্লাকে সভাপতি, অ্যাডভোকেট আনোয়ার হোসেন আনু, অ্যাডভোকেট শাহাদাত হোসেন, অ্যাডভোকেট মাহবুবুল আলম কবীর, অ্যাডভোকেট বনি আমীন বাকলাই, কাউন্সিলর দুলাল হাওলাদারকে সহসভাপতি, আওয়ামীলীগ নেতা শাহ আলম রিপন মল্লিককে সাধারণ সম্পাদক, যুবসংহতি নেতা মো. ইউনুচ হাওলাদারকে সাংগঠনিক সম্পাদক, এইচএম রিয়াজ খান অশ্রুকে যুক্ত করে ৫১ সদস্য বিশিষ্ট সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষা কমিটি গঠন করা হয়। আগামী বৃহস্পতিবার জেলা পর্যায়ের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে ইসকন মন্দির বিষয়ে আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য স্মারকলিপি দেয়ার কর্মসূচী ঘোষণা করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here