রাজাপুরে আহত সেই দুই সন্তানের জননীসহ ৭ জনের নামে উল্টো হামলা ও চুরির মামলা! প্রতিবাদে মানববন্ধন

0
218
ঝালকাঠির রাজাপুরের কেওতা গ্রামের সুলতান মার্কেট এলাকায় মানববন্ধন করে এলাকাবাসী।

রাজাপুর (ঝালকাঠি) প্রতিনিধি
ঝালকাঠির রাজাপুরের কেওতা গ্রামের সুলতান মার্কেট এলাকায় বিরোধীর জমিতে ঘর উত্তোলনে বাধা দেয়ায় ২ শিশু সন্তানের জননীর আঙ্গুলের রগ কেটে দেয়াসহ হামলা ও মারধরের ঘটনায় শনিবার রাতে উল্টো ওই ২ শিশু সন্তানের জননীসহ ৭ জনের নামে হামলা ও চুরির মামলা রেকর্ড করেছে রাজাপুর থানার পুলিশ। হামলায় হাতের আঙ্গুলের রগকাটা খাদিজা আক্তার সুখির ভাসুর মনির হাওলাদার বাদি হয়ে থানায় মামলা দায়েরের ১ দিন পর ওই মামলার ১ নম্বর আসামী সোহরাপ হোসেন নিজেই বাদি হয়ে এ মামলা করেন। রোববার (১০ মে) সকালে ওই হয়রানিমূলক মামলার প্রতিবাদে ও হামলার বিচার চেয়ে এবং আসামী গ্রেফতারের দাবিতে কেওতা গ্রামের সুলতান মার্কেট এলাকায় মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। কেওতা গ্রামবাসী ব্যানারে আয়োজিত এ মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন মাসুদুর রহমান মিলন হাওলাদার, বাদল হাওলাদার, হাসিনা বেগম, কবির হাওলাদার, মাহবুব হাওলাদার ও তাজেল হাওলাদার প্রমুখ। মানববন্ধনে হাতের আঙ্গুলের রগকাটা খাদিজা আক্তার সুখির দুই মেয়ে ৩ বছর বয়সী মারিয়া ও ৪ মাস বয়সী সারিয়া উপস্থিত ছিলো। ওই দুই শিশুর মা বর্তমানে বরিশাল শেবাচিমে চিকিৎসাধীন রয়েছে বলে জানা গেছে। মানববন্ধনে সোহরাপ ও রফিকুল’র হাত থেকে কেওতাবাসি রক্ষা পেতে প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্টদের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
উভয় মামলার আইও রাজাপুর থানার এসআই মোঃ আঃ রৌফ জানান, মামলা রেকর্ড করেন ওসি মহোদয়। আইও হিসেবে মামলার কপি পাওয়ার পর প্রথম মামলার তদন্তে শনিবার ঘটনাস্থলে গিয়েছি এবং দ্বিতীয় মামলার কপি পাওয়ার পর রোববার ঘটনাস্থলে তদন্তে গিয়েছি। তবে উভয় মামলায় কাউকেই গ্রেফতার করা হয়নি। রাজাপুর থানার ওসি জাহিদ হোসেন’র বক্তব্য নিতে মোবাইলে কল করা হয়। কিন্তু তিনি রিসিভ না করায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here