1. admin@dainikshatakantha.com : dainikshatakantha :
রবিবার, ১৬ মে ২০২১, ০২:২৭ অপরাহ্ন

রাজাপুরের অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধার সন্তান আব্দুল মান্নানের একটি ঘরের জন্য আকুতি

  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ৮ অক্টোবর, ২০২০
  • ১৩৯ বার পড়া হয়েছে
মুক্তিযোদ্ধার সন্তান আব্দুল মান্নান হাওলাদার
মুক্তিযোদ্ধার সন্তান আব্দুল মান্নান হাওলাদার।

স্টাফ রিপোর্টার
ঝালকাঠি রাজাপুরের বড়ইয়া ইউনিয়নের আদাখোলা গ্রামের আব্দুল মান্নান হাওলাদারের বাবা মুক্তিযোদ্ধা প্রায়াত হাচেন আলী হাওলাদার বঙ্গবন্ধুর ডাকে যুদ্ধে গিয়েছিলেন। তিনি দেশকে শত্রুমুক্ত ও স্বাধীন বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে নিজের জীবনবাজি রেখে ঝাঁপিয়ে পড়েন পাক হানাদার বাহিনীর ওপর।
মুক্তিযোদ্ধা প্রায়াত হাচেন আলী হাওলাদারের মুক্তিযোদ্ধা নম্বর (লাল মুক্তিবার্তা নং-০৬০২০৩০০৭৯)। বেসামরিক গেজেট নম্বর-১২৮৯ প্রকাশের তারিখ ২০০৫ সালের ১৭ এপ্রিল। মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রদত্ত সাময়িক সনদ নম্বর ম- ৮৩৭৩৪, তারিখ ১৮/০৪/২০০৫। সেই অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধা হাচেন আলী হাওলাদারের সন্তান হিসেবে আব্দুল মান্নান হাওলাদার (৫৬) ভালো নেই। সরকারের অসচ্ছল বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য আবাসন নির্মাণের প্রকল্প থেকে (কেবলমাত্র অসচ্ছল বীর মুক্তিযোদ্ধাদের/পরিবারের জন্য) একটি পাকা ঘরের জন্য আকুতি জানিয়েছেন। তিনি একটি ঘরের জন্য প্রশাসনের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন।
মুক্তিযোদ্ধার এ সন্তান আব্দুল মান্নান হাওলাদার রাজাপুরের বড়ইয়া ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের আওয়ামীলীগের সহসভাপতি হিসেবে মাঠ পর্যায়ে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। নিদারুন আর্থিক কষ্টে ভোগা আওয়ামী লীগের তৃণমূলের এ কর্মী বাবার পাওয়া ২৫ শতাংশ নাল জমিতে কোন রকম চাষাবাদ করে জীবিকা নির্বাহ করেন। বাবার ওয়ারিশ সূত্রে পাওয়া ১৭ শতাংশ জমিতে টিন ও কাঠের তৈরী একটি জরাজীর্ণ ঘর রয়েছে তাঁর। সেটি ব্যবাহারের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। এর পাশেই অন্য একটি ঘর ছিল যা ১৯৮৫ সালে আগুনে পুড়ে যায়। ২০১৯ সালে মায়ের চিকিৎসার জন্য দীর্ঘদিন খুলনায় অবস্থান করায় বাবার ঘরটি আরও ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। তিনি একটি ভালো ঘরের অভাবে মানবেতর জীবন যাপন করছেন।
মুক্তিযোদ্ধার সন্তান আব্দুল মান্নান হাওলাদার জানান, আমার নিজের কোন আয় রোজগার নেই। আমার মায়ের চিকিৎসার খরচ জোগাতে গিয়ে আমি নিস্ব হয়ে পড়েছি। বাবার ভিটায় একটি ভালো ঘর নির্মাণের আর্থিক সচ্ছলতা আমার নেই। সরকার অস্বচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের পরিবারকে ঘর দিচ্ছে। তাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসনিার সরকারের কাছে আকুল আবেদন, আমাকে একটু আশ্রয়ের ব্যবস্থা করে দিন। অন্তত নিজ ঘরে পরিবার নিয়ে যেন একটু মাথা গোজার ঠাঁই হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
সর্বস্বত্ত্ব © দৈনিক শতকন্ঠ - ২০২১ কর্তৃক সংরক্ষিত।
Theme Customized By BreakingNews