1. admin@dainikshatakantha.com : dainikshatakantha :
শনিবার, ২৪ জুলাই ২০২১, ০১:০৩ পূর্বাহ্ন

গালুয়া চেয়ারম্যানের সই জাল! প্যানেল চেয়ারম্যান কারাগারে

  • প্রকাশিত : বুধবার, ৬ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৯০ বার পড়া হয়েছে
সই জাল প্যানেল চেয়ারম্যান কারাগারে
সই জাল প্যানেল চেয়ারম্যান কারাগারে

স্টাফ রিপোর্টার
একটি চুরির মামলায় চেয়ারম্যানের সই জাল করে ঝালকাঠির আদালতে বাদী পক্ষে প্রতিবেদন দাখিল করায় রাজাপুরের গালুয়া ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান শ. ম. রিয়াজ আহমেদ ওরফে শাহিনকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে বিচারাধীন মামলার বাদী হাবিবা বেগমকেও জেল হাজতে পাঠানো হয়। সোমবার সন্ধ্যায় ঝালকাঠির জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম ১ম আদালতের বিচারক এইচ এম ইমরানুর রহমান এ আদেশ দেন। এর আগে বিকেলে ওই বিচারধীন মামলার বিচারক শেখ আনিসুজ্জামান তাদের দুজনকে আসামি করে একটি জালিয়াতির মামলা দায়ের করেন। আদালতের বেঞ্চ সহকারী মো. মহসিন রাজা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
মামলার বিবরণে জানা যায়, রাজাপুরের পুটিয়াখালী গ্রামের মাওলানা আবদুল হকের মেয়ে হাবিবা বেগম ২০১৮ সালে ৯ জনকে আসামি করে ঝালকাঠির জ্যেষ্ঠ বিচারিক আদালতে একটি চুরির মামলা দায়ের করেন। পরবর্তীতে আসামিরা আদালত থেকে জামিন নেন। আদালতের বিচারক শেখ আনিসুজ্জামান ওই বছরের ১৮ ডিসেম্বর রাজাপুর গালুয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. মুজিবুল হককে মামলাটির তদন্ত করে আদালতে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ প্রদান করেন। কিন্তু চেয়ারম্যান মো. মুজিবুল হক সে সময় যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছিলেন। সেই সুযোগে ২০১৯ সালের ২৯ এপ্রিল চেয়ারম্যানের সই জাল করে প্যানেল চেয়ারম্যান শ. ম. রিয়াজ আহমেদ মামলার বাদী হাবিবা বেগমের সঙ্গে যোগসাজসে আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে একটি প্রতিবেদন দাখিল করেন। পরবর্তীতে সই জালের বিষয়টি আসামিদের আইনজীবী সঞ্জিব কুমার বিশ্বাস আদালতের নজরে আনেন। চেয়ারম্যান মো. মুজিবুল হকও তাঁর সইটি জাল করা হয়েছে বলে আদালতকে জানান। আদালত উভয় পক্ষের উপস্থিতিতে সোমবার বিকেলে মামলার শুনানী শোনেন। আদালতের বিচারক চেয়ারম্যান মুজিবুল হক ও প্যানেল চেয়ারম্যান রিয়াজ আহমেদের সই যাচাই করার জন্য একটি সাদা কাগজে উভয় পক্ষের সই নেন। সেখানে তাদের হাতের লেখায় কোন মিল খুঁজে পাওয়া যায়নি। এক পর্যায়ে আদালতের বিচারক শেখ আনিসুজ্জামান প্যানেল চেয়ারম্যান শ. ম. রিয়াজ আহমেদ ও হাবিবা বেগমকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন। পরে সন্ধ্যায় তাদের জেল হাজতে পাঠানো হয়।
বাদী হাবিবা বেগমের আইনজীবী শামীম হোসেন আকন বলেন, আমার পক্ষ সম্পূর্ণ নির্দোষ। আসামিরা তার বসত বাড়ি ভাঙচুর করে মালামাল চুরি করে। তারা গরু ছাগলও নিয়ে যায়। প্যানেল চেয়ারম্যান শ. ম. রিয়াজ আহমেদ চেয়ারম্যান মুজিবুল হকের সই নিয়েই আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন। আসন্ন নির্বাচনে রিয়াজ আহমেদের ভাবমূর্তি নষ্ট করতেই চেয়ারম্যান মুজিবুল হক তাঁকে ফাসিয়েছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
সর্বস্বত্ত্ব © দৈনিক শতকন্ঠ - ২০২১ কর্তৃক সংরক্ষিত।
Theme Customized By BreakingNews