1. admin@dainikshatakantha.com : dainikshatakantha :
মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ১১:৩২ অপরাহ্ন

গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড এ নাম লেখানো ঝালকাঠির জুবায়েরকে সংবর্ধনা

  • প্রকাশিত : সোমবার, ১০ আগস্ট, ২০২০
  • ১৯৬ বার পড়া হয়েছে
গিনেস বুকে নাম লেখানো জুবায়েরকে সম্মাননা ক্রেস্ট দেন অতিথিবৃন্দ।

স্টাফ রিপোর্টার
নেক থ্রো ক্যাচেস ক্যাটাগরিতে মিনিটে ৬৫ বার বল নিক্ষেপ ও ধরে রাখায় বিশ্ব রেকর্ড গড়ে গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড এ নাম লেখালো ঝালকাঠির ২২ বছরের যুবক আশিকুর রহমান জুবায়ের। ৩০ জুলাই গিনেস বুক অব ওর্য়াল্ড রেকর্ডস কর্তৃপক্ষের দেওয়া এ সংক্রান্ত স্বীকৃতি পত্রটি জুবায়ের হাতে পৌঁছেছে। এ স্বীকৃতি তাকে অনন্য উচ্চতায় পৌঁছে দিয়েছে। ইতেমধ্যে বিভিন্ন সংগঠন তাঁর এ সাফল্যে সংবর্ধনা দিয়েছে। রবিবার বিকেলে ঝালকাঠি প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে তাকে সংবর্ধনা দেয় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ইয়ুথ একশন সোসাইটি। জুবায়েরকে ক্রেস্ট উপহার দেওয়া হয় সংগঠনটির পক্ষ থেকে। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা পরিষদ ভাইসচেয়ারম্যান ইসরাত জাহান সোনালী, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক তরুণ কর্মকার, ঝালকাঠি প্রেস ক্লাবের সভাপতি চিত্তরঞ্জন দত্ত ও সাধারণ সম্পাদক আক্কাস সিকদার। ইয়ুথ একশন সোসাইটির সভাপতি শাকিল হাওলাদার রনির অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন।
জানা যায়, ঝালকাঠি জেলা শহরের মসজিদ বাড়ি রোডের জালাল আহম্মেদের ছেলে আশিকুর রহমান জুবায়ের। সে বরিশাল বিএম কলেজের ম্যানেজমেন্ট বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র। ছোটবেলা থেকেই তাঁর আসক্তি ফুটবলে। লেখাপড়ার পাশাপাশি ফুটবলের বিভিন্ন কলাকৌশল রপ্ত করার চেষ্টা ছিলো জুবায়েরের নেশা। মা বাবার চোখ এড়িয়ে বাসার মধ্যে রুম আটকিয়েও করতেন অনুশীলন। কোন প্রশিক্ষক না থাকা সত্বেও ব্যক্তিগত অনুশীলনই এখন তাকে এনে দিয়েছে বিশ্ব সেরার স্বীকৃতি। ২০১৬ সালের ৫ নভেম্বর জার্মানির মার্কেল গুর্ক ‘নেক থ্রো অ্যান্ড ক্যাচেস’ ক্যাটাগরিতে মিনিটে ৬২ বার বল নিক্ষেপ ও ধরে রাখায় বিশ্বরেকর্ড গড়েন। জুবায়ের মিনিটে ৬৫ বার নেক থ্রো অ্যান্ড ক্যাচেসে বল নিক্ষেপ ও ধরে রাখায় আগের রেকর্ডটি ভেঙে বিশ্ব সেরার স্বীকৃতি পান। জুবায়েরের এই সাফল্যে তার পারিবার এবং জেলাবাসি আনন্দিত ও গর্বিত। সে শুধু নিজের জন্য নয় দেশের জন্যও সন্মান বয়ে এনেছে। বিশ্ব সেরার এ স্বীকৃতি পেয়ে ভিষণ আনন্দিত জুবায়ের। তার এ সাফল্যে দেশের ফুটবলপ্রেমি যুবকরা উৎসাহিত হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেছেন।
গিনেস রেকর্ডের বিষয়ে মো.আশিকুর রহমান জুবায়ের বলেন, নিজের খেয়াল থেকেই এগুলো করেছি। ছোটবেলাতে ফুটবলার হওয়ার ইচ্ছা থাকলেও বেশিদূর এগোতে পারিনি। তবে ইচ্ছা ছিল আলাদা কিছু করার। বাসায় লেখাপড়ার জন্য বাবা-মায়ের কড়া শাসন থাকলেও ঘরের দরজা বন্ধ করেই নিয়মিত চালিয়ে যেতাম প্রাকটিস। এক্ষেত্রে পেছনে কোনো প্রশিক্ষক ছিল না। তবে পৃষ্ঠপোষকতা পেলে আরও অনেকেই এর প্রতি ঝুঁকবে বলে আশা করি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
সর্বস্বত্ত্ব © দৈনিক শতকন্ঠ - ২০২১ কর্তৃক সংরক্ষিত।
Theme Customized By BreakingNews