1. admin@dainikshatakantha.com : dainikshatakantha :
বৃহস্পতিবার, ০৫ অগাস্ট ২০২১, ১০:৪৮ অপরাহ্ন

ঝালকাঠিতে কোরবানির পশু অগ্রিম ক্রেতাদের জন্য অনলাইন হাট চালু

  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ১ জুলাই, ২০২১
  • ৮৬ বার পড়া হয়েছে
কুরবানির পশু অগ্রিম ক্রেতাদের জন্য কঠোর লকডাউনের মধ্যে চালু হয়েছে অনলাইন হাট।
কুরবানির পশু অগ্রিম ক্রেতাদের জন্য কঠোর লকডাউনের মধ্যে চালু হয়েছে অনলাইন হাট।

আতিকুর রহমান

মুসলিমদের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আজহার আর বাকি মাত্র ২০দিন। এ উপলক্ষ্যে কুরবানির পশু অগ্রিম ক্রেতাদের জন্য সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউনের মধ্যে চালু হয়েছে অনলাইন হাট। জেলা প্রাণি সম্পদ অধিদপ্তরের অধীনে জেলার ৪ উপজেলায় ফেসবুক পেইজের মাধ্যমে অনলাইন হাটের ব্যবস্থা করেছে উপজেলা প্রাণি সম্পদ কার্যালয় কর্তৃপক্ষ। গত ২২জুন থেকে এ হাটের কার্যক্রম অনলাইন ভিত্তিক শুরু হয়। ইতিমধ্যে বিক্রেতারা পশুর ছবি দিয়ে মালিকের নাম, ঠিকানা, মোবাইল নম্বর, পশুর ওজন ও দাম উল্লেখ করে পোস্ট করছেন। মন্তব্যের ঘরে পশুর আরো বিবরণ জানতে বিভিন্ন প্রশ্ন করছেন জনসাধারন। সেই সাথে রয়েছে অনেক ও শেয়ার। আবার অনেকে এমন দুর্যোগ মুহুর্তে এ পদ্ধতিকে সাধুবাদও জানিয়েছেন।

ঝালকাঠি সদর উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিস ও ভেটেরিনারি হাসপাতালের উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিসার (ভা.প্রা.) ডা. মো. সারোয়ার হাসান জানান, আসন্ন পবিত্র ইদুল আযহাতে যারা সুস্থ এবং নিরাপদ পশু কুরবানী করতে চান তারা এই পেজে প্রদত্ত গরুর/ছাগলের ছবি দেখে পছন্দ করে মালিকের সাথে যোগাযোগ করে দাম ঠিক করে কিনতে পারবেন। এই পেজে প্রদত্ত সকল গরু, ছাগলই উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিসের প্রত্যক্ষ তত্ত¡াবধানে আধুনিক পদ্ধতিতে হৃষ্টপুষ্ট করা হয়েছে। কোন ধরনের ক্ষতিকর স্টেরয়েড/হরমোন ব্যবহার করা হয়নি। করোনা মহামারীর সময় জনসমাগম এড়িয়ে পছন্দের গরুটি ক্রয় করতে এবং অন্যকে গরু কিনতে সহায়তা করার আহŸান জানান তিনি।

ঝালকাঠি জেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা কৃষিবিদ ডা. মো. ছাহেব আলী জানান, কুরবানির বাকি আর মাত্র ২০দিন। ১জুলাই থেকে সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউন শুরু হয়েছে। মহামারি করোনার সংক্রমণ স্বাভাবিক হলে কুরবানির কয়েকদিন আগে হাট বসতে পারে। যারা অগ্রিম কুরবানির পশু কিনতে আগ্রহী তাদের সুবিধার্থে আগাম ব্যবস্থা নেয়া। জেলার ৪উপজেলায়ই প্রাণি সম্পদ অফিসের প্রত্যক্ষ তত্ত¡াবধানে প্র্কাৃতিকভাবে আধুনিক ও উন্নত প্রযুক্তিতে হৃষ্পটপুষ্ট পশুই অনলাইনে সাবমিট করা হচ্ছে। প্রত্যেক উপজেলার জন্য আলাদা পেইজ রয়েছে। সেই পেইজ থেকে চাহিদানুযায়ী পশু দেখে ক্রেতারা নিতে পারবেন বলেও জানান এ কর্মকর্তা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
সর্বস্বত্ত্ব © দৈনিক শতকন্ঠ - ২০২১ কর্তৃক সংরক্ষিত।
Theme Customized By BreakingNews