1. admin@dainikshatakantha.com : dainikshatakantha :
শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ০৪:২১ অপরাহ্ন
সর্বশেষ আপডেট:
সমালোচনার মুখে সিদ্ধান্ত পরিবর্তন, ভারত থেকে নাগরিকদের ফেরাতে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিচ্ছে অস্ট্রেলিয়া এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণের নতুন তারিখ দিয়েছে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করতে জেলা প্রশাসনের অভিযান, ঝালকাঠির ঈদ মার্কেটে ছুটির দিনে মানুষের ঢল, স্বাস্থ্য বিধির কোন তোয়াক্কা নেই বাংলাদেশের সমুদ্রসীমায় মৎস্য আহরণ নিষিদ্ধ করেছে সরকার, ঝালকাঠিতে প্রস্তুতিমুলক সভা ঝালকাঠিতে অভ্যন্তরিণ চারটি রুটে গণপরিবহণ চলাচল শুরু ঝালকাঠি সিটি ক্লাবের পক্ষ থেকে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ মোবাইল অ্যাপসের মাধ্যমে কৃষকের বোরো ধান সংগ্রহ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হাবিবুল্লাহ’র পদোন্নতিতে প্যান এর বরিশাল কো-অর্ডিনেটর এর অভিনন্দন রাজাপুরে ১২ সহাস্রাধিক দুঃস্থদের প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ঝালকাঠিতে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ১৪ জনকে জরিমানা
শিরোনাম:
সমালোচনার মুখে সিদ্ধান্ত পরিবর্তন, ভারত থেকে নাগরিকদের ফেরাতে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিচ্ছে অস্ট্রেলিয়া এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণের নতুন তারিখ দিয়েছে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করতে জেলা প্রশাসনের অভিযান, ঝালকাঠির ঈদ মার্কেটে ছুটির দিনে মানুষের ঢল, স্বাস্থ্য বিধির কোন তোয়াক্কা নেই বাংলাদেশের সমুদ্রসীমায় মৎস্য আহরণ নিষিদ্ধ করেছে সরকার, ঝালকাঠিতে প্রস্তুতিমুলক সভা ঝালকাঠিতে অভ্যন্তরিণ চারটি রুটে গণপরিবহণ চলাচল শুরু ঝালকাঠি সিটি ক্লাবের পক্ষ থেকে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ মোবাইল অ্যাপসের মাধ্যমে কৃষকের বোরো ধান সংগ্রহ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হাবিবুল্লাহ’র পদোন্নতিতে প্যান এর বরিশাল কো-অর্ডিনেটর এর অভিনন্দন রাজাপুরে ১২ সহাস্রাধিক দুঃস্থদের প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ঝালকাঠিতে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ১৪ জনকে জরিমানা

ঝালকাঠিতে স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে মেডিকেল টেকনোলজিস্টরা

  • প্রকাশিত : বুধবার, ১৫ জুলাই, ২০২০
  • ২২০ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার
বিশ্বমহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে বাংলাদেশের সব কিছুতে এখন স্থবিরতা। ঘরে থাকা যেখানে রাষ্ট্রের ঘোষণা সেখানে করোনা যুদ্ধে সম্মুখ সমরে কাজ করছে মেডিকেল টেকনোলজিস্টরা। করোনা রোগির কাছ থেকে স্বশরীরে গিয়ে নমুনা সংগ্রহ করা থেকে শুরু করে সেটা ল্যাবে পরীক্ষা এবং রিপোর্ট তৈরি করে কর্মকর্তাদের টেবিল পর্যন্ত পৌছাতে পেছনে থেকে যে মানুষগুলো অবদান রাখছে কেউ খবর রাখছেনা সে সব বীরদের। কোন সময় খবরেও আসেনা। এমনকি টিভিতে নিজের চেহারা দেখানোর সুযোগও নেই। বরং মাঝে মধ্যে সামান্য পানথেকে চুন খসলেই পড়তে হয় নানা আইনী জটিলতায়, শুনতে হয় কর্মকর্তাদের বকোনি। তবে সাধরাণ মানুষের মতে করোনার এই দুঃসময়ে মেডিকেল, ইপিআই টেকনোলজিস্ট এবং স্বাস্থ্য বিভাগের দাপ্তরিক কাজে যারা জড়িত তারাই সব চেয়ে বেশি সম্মান পাওয়ার যোগ্য।
জানা গেছে, ঝালকাঠির মেডিকেল টেকনোলজিস্ট, ইপিআই মেডিকেল টেকনোলজিস্টরাই মূলত জেলার করোনা রোগি থেকে নমুনা সংগ্রহ করেন। পরে সেগুলো বরিশাল শেরই বাংলা মেডিকেল কলেজে প্রেরণ করেন। সেখান ল্যাবে পরীক্ষা করে নির্ধারণ করা হয় কারো শরীরে করোনা ভাইরাস আছে কিনা।
এ ব্যাপারে সদর হাসপাতালের কর্মকর্তারা বলেন, মেডিকেল টেকনোলজিস্টরা হচ্ছে বর্তমান সময়ের সব চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশ। তারাই করোনা রোগি থেকে মাঠ পর্যায়ে গিয়ে নমুনা সংগ্রহ থেকে শুরু করে পরীক্ষার রিপোর্ট পর্যন্ত সব কিছু করছেন। এছাড়া দাপ্তরিক কাজের সাথে জড়িতদেরকেও অগ্রভাগের সৈনিক বলা যাবে। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অর্পিত দায়িত্ব নিষ্ঠার সাথে পালন করছেন।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন মেডিকেল টেকনোলজিস্ট বলেন, যখন থেকে দেশে করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ রুপ নিয়েছে, তখন থেকে আমাদের জীবনকে উৎসর্গ করেছি রাষ্ট্রের কাজে মানবিক দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে। ইতোমধ্যে আমাদের কয়েকজন সহকর্মী করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তারা রোগি থেকে নমুনা সংগ্রহ করতে গিয়েই আক্রান্ত হয়েছেন বলে সবার ধারণা। এতে আমাদের পরিবার পরিজন চরম ঝুঁকির মধ্যে আছে। বর্তমানে ল্যাবে এবং মাঠে কাজ করতে গিয়ে আমাদের খাওয়া দাওয়ার সময়ও হয়না। আবার বাড়ি ফিরেও ঠিকমত ছেলেমেয়েদের সাথে সময় কাটাতে ভয় লাগে। কারণ, সারাক্ষণ করোনার সাথে থাকি সে জন্য। যদিও অনেক ধরনের প্রটেকশন ব্যবহার করি, তার পরও খুব ভয় লাগে। এরপরও আমাদের সামান্য ভুল বা অন্যকোন সমস্য হলে পোহাতে হয় নানান ধরনের ঝামেলা। অনেক সহকর্মী এবং আত্মীয় স্বজন, ভাইব্রাদার যারা আছেন তারা আমাদেরকে এড়িয়ে চলেন করোনা ডিউটি করি বলে।
ঝালকাঠি সদর হাসপাতালের তত্বাবধায়ক কাম সিভিল সার্জন ডাঃ আবুয়াল হাসান জানান, একজন ডাক্তার তখনি চিকিৎসা দিতে পারেন, যখন তার হাতে রোগির সঠিক তথ্য থাকে। আর রোগের সঠিক তথ্য তুলে আনে মেডিকেল টেকনোলজিস্টসহ সহযোগিরা। বর্তমান কঠিন পরিস্থিতিতে তারা খুবই আন্তরিকভাবে দেশের জন্য কাজ করছেন বলেই এখনো পর্যন্ত সব কিছু নিয়ম মাফিক চলছে। তাই আমি তাদের অভিবাদন জানাচ্ছি।
অপরদিকে বেসকারী ল্যাব ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে কর্মরতরাও একই ঝুঁকি নিয়ে জীবন-জীবিকার তাগিদে মানবিক প্রয়োজনে জনসাধারনকে চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছে। ইতিমধ্যে একটি ল্যাব মালিকসহ কয়েকজন আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানাগেছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
সর্বস্বত্ত্ব © দৈনিক শতকন্ঠ - ২০২১ কর্তৃক সংরক্ষিত।
Theme Customized By BreakingNews