1. admin@dainikshatakantha.com : dainikshatakantha :
রবিবার, ০১ অগাস্ট ২০২১, ০৪:৪০ পূর্বাহ্ন

ঝালকাঠির ব্যবসায়ীর উপর প্রতিপক্ষের হামলা, থানায় মামলা না নেয়ার অভিযোগ

  • প্রকাশিত : বুধবার, ২২ জুলাই, ২০২০
  • ২৩১ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার
ঝালকাঠি সদর উপজেলার নৈকাঠি গ্রামে প্রতিপক্ষের হামলায় ব্যবসায়ী গুরুতর আহতের ঘটনায় একসপ্তাহ অতিবাহিত হলেও থানা পুলিশ মামলা নেয়নি বলে অভিযোগ করা হয়েছে। আহত ব্যবসায়ী মোঃ সাইদুল ইসলাম (৩৫) এর পরিবার সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগে জানায়, হামলাকারী বিএনপি নেতা আব্দুল মান্নান লাভুর একজন আত্মীয় পুলিশ ইন্সপেক্টর। তার মাধ্যমে ঝালকাঠি সদর থানায় প্রভাব খাটানো হচ্ছে। এর ফলে মামলা নিতে গড়িমসি করছে থানা পুলিশ।
জানাগেছে, সাইদুল ইসলাম ঝালকাঠি শহরের পশ্চিম চাঁদকাঠিতে ডিলারশীপের ব্যবসা করেন। গত শুক্রবার দুপুরে ব্যবসায়ীক কাজ শেষে বাড়িতে ফেরার পথে পথরোধ করে হামলা করে উপজেলার কেওড়া ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আব্দুল মান্নান লাভু, পুত্র আরিফুর রহমান সুমন (২৭) ও আশিকুর রহমান শুক্কুর (১৮)। এসময় তারা পিটিয়ে বাম পা ভেঙে দেয় এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে পিটিয়ে জখম করে ফেলে রেখে যায়। সাথে থাকা প্রায় ২০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয় হামলাকারীরা। পরে মসজিদের নামাজ শেষ হলে মুসল্লিরা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে। এঘটনায় ব্যবসায়ী সাইদুল ইসলামের বোন নুরুন্নাহার মঞ্জুু বাদী হয়ে সদর থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। অভিযোগটি আমলে না নিয়ে থানা কর্তৃপক্ষ গড়িমসি করে মিমাংসার প্রস্তাব দেন। কারণ হিসেবে অভিযোগ করে মঞ্জু জানান, বিএনপি নেতা লাভুর আত্মীয় আছেন যিনি পুলিশের ইন্সপেক্টর। তিনি ঝালকাঠি সদর থানায় যোগাযোগের কারণে আমাদের মামলা না নিয়ে এখন মিমাংসার কথা বলছে পুলিশ।
সাইদুলের স্ত্রী লাবনি জানান, আহতাবস্থায় সদর থানায় গিয়ে লিখিত অভিযোগ দিলে সেখান থেকে হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেই থেকে প্রতিদিন একবার করেই থানায় যোগাযোগ করা হয়। কিন্তু কোন আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না।
উল্লেখ্য, ২০১৮ সালে সাইদুলের পিতা নুরুল ইসলামের ইন্তেকালে জানাজা নামাজের সময়সহ ২০১২ ও ২০০৮ সালেও এ পরিবারের উপর প্রতিপক্ষরা নৃশংসভাবে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়েছে। এনিয়ে থানায় একাধিকবার অভিযোগ দিলেও কোন সুরাহা হয়নি বলে জানান আহতের পরিবার। এছাড়াও বিরোধের কারণে নুরুন্নাহার মঞ্জুকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে মামলা বিচারাধীন আছে লাভুর বিরুদ্ধে।
ঝালকাঠি সদর থানার অফিসার ইন চার্জ (ওসি) মোঃ খলিলুর রহমান জানান, উভয়পক্ষই চাচাতো ভাই। দীর্ঘদিনের শত্রুতা তাদের মধ্যে। হামলার ঘটনায় মামলা হবার মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নেই। তারপরেও অধিকতর তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
সর্বস্বত্ত্ব © দৈনিক শতকন্ঠ - ২০২১ কর্তৃক সংরক্ষিত।
Theme Customized By BreakingNews