ঝালকাঠি জেলা পরিষদের কাজের ঠিকাদার নিয়োগ লটারির মাধ্যমে, দৃষ্টান্ত স্থাপন

0
190
ঝালকাঠি জেলা পরিষদের ঠিকাদার নিয়োগের জন্য লটারী করেন জেলা পরিষদ চেয়াম্যান আলহাজ্ব সরদার মো. শাহ আলম।

মানিক রায়
জেলা পরিষদ করোনাভাইরাস পরিস্থিতির মধ্যেও বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। সোমবার (২৭ জুলাই) সকাল ১১টায় জেলা পরিষদের সভাকক্ষে লটারীর মাধ্যমে ৫০টি গ্রুপের ঠিকাদার নিয়োগ করা হয়েছে। জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সরদার মো. শাহ্আলম ঠিকাদারদের উপস্থিতিতে লটারীর মাধ্যমে ঠিকাদার নিয়োগ চূড়ান্ত করেছেন। অনুষ্ঠানে ঝালকাঠির অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ও জেলা পরিষদের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আরিফুল ইসলাম, জেলা পরিষদের সদস্য আলহাজ্ব সালেহ আহম্মেদ সালেক, শাম্মী মৌসুমী কেকা, মো. আব্দুল রশিদ হাওলাদার, সাইদুর রহমান সেন্টু উপস্থিত ছিলেন।
ঝালকাঠি জেলা পরিষদের নলছিটি ও ঝালকাঠি সদর উপজেলার ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরে এডিবি খাতে ৫০টি গ্রæপের দরপত্র আহবান করা হয়। ২ কোটি ৩১ লক্ষ টাকার ৫০টি প্রকল্পে ৪ হাজার ৯শ ১৩টি সিডিউল বিক্রয় হয়। সিডিউল বিক্রি থেকে জেলা পরিষদ রাজস্ব খাতে ২২ লক্ষ ৭১ হাজার ৩৫০টাকা আয় করে। রাজস্ব খাতের আয় থেকে জেলা পরিষদের সদস্য ও কর্মকর্তা কর্মচারিদের বেতন ভাতা দেয়া হয়। এ যাবৎকালের মধ্যে জেলা পরিষদের সর্বোচ্চ সিডিউল বিক্রি হয়েছে। ইতোপূর্বের পরিসংখ্যান রাজস্ব আয় ৪০% বৃদ্ধি পেয়েছে। সর্বনিম্ন প্রতিটি গ্রুপে ১২১টি এবং সর্বোচ্চ ১৪৫টি সিডিউল বিক্রি হয়েছে। ১ লক্ষ টাকা থেকে সর্বাধিক ৯ লক্ষটাকা প্রকল্প প্যাকেজ রয়েছে। গ্রামিণ সড়ক অবকাঠামো উন্নয়ন খাতে ইটের সলিং রাস্তা, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে সিমানা প্রাচীর ও গভীর নলকূপ বসানোর জন্যই এই প্রকল্পগুলো করা হয়েছে। জেলা পরিষদ দীর্ঘদিন ধরেই সচ্ছতা ও জবাবদিহিতার প্রতিষ্ঠান হিসেবে লটারীর মাধ্যমে ঠিকাদার নিয়োগ করে আসছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here