1. admin@dainikshatakantha.com : dainikshatakantha :
বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ০৮:৫৫ পূর্বাহ্ন

রাজাপুরে দেড় কিলোমিটার কর্দমাক্ত রাস্তায় শিক্ষার্থীসহ ৩ শতাধিক পরিবারের ভোগান্তি

  • প্রকাশিত : বুধবার, ৭ অক্টোবর, ২০২০
  • ২২৪ বার পড়া হয়েছে
ছোট-কৈবর্তখালী এলাকার দেড় কিলোমিটার রাস্তা কর্দমাক্ত
ঝালকাঠি: রাজাপুরে ছোট-কৈবর্তখালী এলাকার দেড় কিলোমিটার রাস্তা কর্দমাক্ত।

স্টাফ রিপোর্টার
ঝালকাঠির রাজাপুরের সদর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের ছোট-কৈবর্তখালী এলাকার দেড় কিলোমিটার রাস্তা বৃষ্টির মৌসুমে বৃষ্টির পানি ও কর্দমাক্ত হয় তিন শতাধিক পরিবারের লোকজনের চলাচলে চরম ভোগান্তি হয়ে পরছে। দেড় কিলোমিটার রাস্তা সংস্কারের দাবি জানিয়েছে এলাকাবাসী।
সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, কয়েক বছর আগে মাটির কাজ সম্পন্ন হলেও এখন পর্যন্ত পাকাকরণের কোন উদ্যোগ নেয়া হয়নি। বর্ষা মৌসুমে পানি, কাদা ও পিচ্ছিল হওয়ায় এলাকার কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীসহ প্রায় তিনশতাধিক পরিবারের লোকজনের চলাচলে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। এ কারণে জনপ্রতিনিধিদের প্রতি এলাকাবাসীর ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। স্থানীয়রা জানান, এ রাস্তা দিয়ে কয়েকটি স্কুল মাদ্রাসার শিক্ষার্থীসহ তিনশতাধিক লোক চলাচল করে। কিন্তু বর্ষার মৌসুমের সময় রাস্তায় পানি ও কাদা হওয়ায় ছোট শিশুরা স্কুলে যেতে পারে না। এছাড়া রোগী, শিশু ও বৃদ্ধদের চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। বিভিন্ন সময় মালপত্র বহন করতে গিয়ে পা পিছলে ছিটকে পড়ে আহত হয়েছে অনেকে। তাদের ধারণা হয়তো যুগের পর যুগ চলে গেলেও সংস্কার হবে না এই রাস্তাটি। বৃষ্টির সময়ে চলাচলের উপযোগী বলে মনে হচ্ছে না। ছোট খাটো অনেক দুর্ঘটনা ঘটে গেছে। বড় কোনো দুর্ঘটনাও ঘটতে পারে। রাজাপুর সদর ইউনিয়ন পরিষদের ৫নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. সেলিম মোল্লা জানান, রাজাপুর ভান্ডারিয়া মহাসড়ক (সমবায় ক্লাব) ক্লাব স্ট্যান্ড থেকে মোল্লা বাড়ির ব্রিজ পর্যন্ত দেড় কিলোমিটার পিচঢালা রাস্তা সংস্কার করা হয়, বাকি মোল্লা বাড়ি থেকে ফকির বাজার পর্যন্ত দেড় কিলোমিটার রাস্তা সংস্কার না করার কারণে বৃষ্টির মৌসুমে রাস্তায় পানি ও কাদা হওয়ায় ওই এলাকার প্রায় তিনশতাধিক পরিবারের লোকের চলাচলে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। এমনকি বৃষ্টির মৌসুমে অনেক শিক্ষার্থীরা স্কুলে যাওয়ার পথে পা পিছলে পড়ে গিয়ে বই-খাতা কাপড়-চোপড় নষ্ট হয়ে যায় এবং বোঝা বহনকারিদের পড়ে গিয়ে বোঝা ছিটকে পড়ে মালামাল নষ্ট হয়ে যায়। ওই এলাকার কোন লোক রাতের বেলা অসুস্থ হলে ডাক্তারের কাছে রাতে যাওয়া সম্ভবই না। দিনের বেলায়ও ডাক্তারের কাছে যেতে চরম কষ্ট পেতে হয়। তিনি আরো জানান, ওই রাস্তাটি পাকাকরণের জন্য বহুবার ইউপি সদস্য, ইউপি চেয়ারম্যানকে বলা হয়েছে। কিন্তু তাদের কোনো উদ্যোগ নেই, ওই রাস্তাটি পাকাকরণের ক্ষমতা ইউনিয়ন পরিষদের নেই বলে পরিষদের পক্ষ থেকে কোন উদ্যোগ নেয়া হয়নি। রাস্তাটি পাকা করণের জন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ এলাকাবাসি সংশ্লিষ্ট উর্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি জানিয়েছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
সর্বস্বত্ত্ব © দৈনিক শতকন্ঠ - ২০২১ কর্তৃক সংরক্ষিত।
Theme Customized By BreakingNews