1. admin@dainikshatakantha.com : dainikshatakantha :
বুধবার, ২৩ জুন ২০২১, ০৮:৪২ অপরাহ্ন
সর্বশেষ আপডেট:
ঝালকাঠিতে করেনাভাইরাসে ৩ জনের মৃত্যু টানা ৯ দফায় ইউপি চেয়ারম্যান পৌর মেয়র ও ৩০ ইউপিতে নৌকার জয় এমপি আমু’র সাথে নবনির্বাচিত মেয়রের সাক্ষাত ঝালকাঠিতে জনপ্রতিনিধিতে হেট্রিক করলেন যাঁরা ঝালকাঠি জেলা কল্যাণ সমিতি খুলনার নেতৃবৃন্দের বিবৃতি, ঝালকাঠি পৌর মেয়রসহ নবনির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্যদের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন শংকরপাশা মাধ্যমিক বিদ্যালয় ভবনটি অতি ঝুঁকিপুর্ণ ম্যাজিস্ট্রেট, বিজিবি, র‌্যাব, পুলিশ, আনসার ভিডিপি সদস্যদের সতর্ক দায়িত্ব পালন ঝালকাঠি পৌরসভা এবং ৩১টি ইউনিয়নে স্বতঃস্ফুর্ত ভোট অনুষ্ঠিত, দুই প্রার্থীর ভোট বর্জন ঝালকাঠি পৌর নির্বাচনে নৌকার জয় ঝালকাঠির ৩১ ইউপিতে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হলেন যাঁরা
শিরোনাম:
ঝালকাঠিতে করেনাভাইরাসে ৩ জনের মৃত্যু টানা ৯ দফায় ইউপি চেয়ারম্যান পৌর মেয়র ও ৩০ ইউপিতে নৌকার জয় এমপি আমু’র সাথে নবনির্বাচিত মেয়রের সাক্ষাত ঝালকাঠিতে জনপ্রতিনিধিতে হেট্রিক করলেন যাঁরা ঝালকাঠি জেলা কল্যাণ সমিতি খুলনার নেতৃবৃন্দের বিবৃতি, ঝালকাঠি পৌর মেয়রসহ নবনির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্যদের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন শংকরপাশা মাধ্যমিক বিদ্যালয় ভবনটি অতি ঝুঁকিপুর্ণ ম্যাজিস্ট্রেট, বিজিবি, র‌্যাব, পুলিশ, আনসার ভিডিপি সদস্যদের সতর্ক দায়িত্ব পালন ঝালকাঠি পৌরসভা এবং ৩১টি ইউনিয়নে স্বতঃস্ফুর্ত ভোট অনুষ্ঠিত, দুই প্রার্থীর ভোট বর্জন ঝালকাঠি পৌর নির্বাচনে নৌকার জয় ঝালকাঠির ৩১ ইউপিতে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হলেন যাঁরা

বিপন্ন বেড়িবাঁধে অরক্ষিত কাঁঠালিয়া

  • প্রকাশিত : বুধবার, ২৬ মে, ২০২১
  • ১২৮ বার পড়া হয়েছে
ঝালকাঠি: কাঁঠালিয়ার বিষখালী নদীতে বেড়িবাঁধ না থাকায় অরক্ষিত ১৫ গ্রামের মানুষ।
ঝালকাঠি: কাঁঠালিয়ার বিষখালী নদীতে বেড়িবাঁধ না থাকায় অরক্ষিত ১৫ গ্রামের মানুষ।

ফারুক হোসেন খান

ঝালকাঠির কাঁঠালিয়ায় বিষখালী নদীতে বেড়িবাঁধ না থাকায় ঘূর্ণিঝড় ইয়াস’র খবরে আতংকে রয়েছে নদী তীরবর্তী ১৫ গ্রামের হাজার হাজার মানুষ। বেড়িবাঁধের অপেক্ষায় জেলার উপকূলীয় কাঁঠালিয়া উপজেলাবাসীর ৫০ বছর কেটে গেছে। ঘূর্ণিঝড় সিডর. আইলা ও আম্ফানে জেলার সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত উপজেলা কাঁঠালিয়া। বাঁধ না থাকায় প্রতি বছর জলোচ্ছাসে ফসল ও মৎস্য সম্পদের ব্যাপক ক্ষতি হয়। এ উপজেলার বিভিন্নস্থান ঘুরে ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বেড়িবাঁধ না থাকায় সিডরে এ উপজেলায় ২১ জনের প্রাণহানি ঘটেছিল। এ ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই ঘূর্ণিঝড় আইলা ও আম্ফানে আঘাত হানে এখানে। কোন প্রাণহানির ঘটনা না ঘটলেও বিষখালী নদীতে অতিরিক্ত পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় ভেসে গেছে জেলেদের জাল, নৌকা। তলিয়ে গেছে মাছের ঘের ও ছোট-বড় পুকুর। নষ্ট হয়ে গিয়েছিল কাঁচা আধা কাঁচা ঘর-বাড়ি ও ফসলের ক্ষেত। এছাড়াও নিয়মিত জোয়ারের পানিতে তলিয়ে যাচ্ছে হাজার হাজার হেক্টর জমি।

বিষখালী নদীর নোনা পানিতে আমুয়া, হেতালবুনিয়া, মশাবুনিয়া, চিংড়াখালী, জয়খালী, কাঁঠালিয়া সদর, কচুয়া, শৌলজালিয়া, রঘুয়ার চর, রঘুয়ারদড়ি চর, তালগাছিয়া, আওরাবুনিয়া ও জাঙ্গালিয়াসহ প্রায় ১৫টি গ্রাম প্রতিদিন স্বাভাবিক জোয়ারে ফসলি মাঠ প্লাবিত হচ্ছে।

স্থানীয় জেলে মিরন জোমাদ্দার বলেন, “বইন্যার (সিডর) সময় গলা পর্যন্ত পানিতে মোগো ঘর দরজা গরু বাছুর সব ভাসাইয়্যা লইয়্যা গ্যাছে। আইলায়ও কম অয়নায় পানি।”

ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে কাঁঠালিয়া লঞ্চঘাট এলাকা ও জয়খালী গ্রামের প্রায় তিন কিলোমিটার অস্থায়ী বাঁধ ভেঙ্গে উপজেলা পরিষদ ও উপজেলা শহরসহ কমপক্ষে ১০টি গ্রাম প্লাবিত হয়। বেড়িবাঁধের দাবীতে তখন স্থানীয় জনসাধারন বিষখালী নদীর পাড়ে মানববন্ধন করেন এবং স্বেচ্ছাশ্রমে এক কিলোমিটার বাঁধ নির্মাণ করেন ভুক্তভোগী এলাকাবাসী। পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রধান প্রকৌশলী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং ভাঙন রোধে জিও ব্যাগ ডাম্পিং করেন।

কচুয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এসএম আমিরুল ইসলাম লিটন সিকদার বলেন, বেড়িবাঁধ না হওয়ায় আমরা বন্যার সময় খুবই অসহায় অবস্থার সন্মুখীন হই। ঘর-বাড়ি আর কৃষির ক্ষতি হচ্ছে।

কৃষি কর্মকর্তা শহীদুল ইসলাম বলেন, বাঁধ না থাকায় বন্যা জলোচ্ছাস ছাড়াও প্রতিদিন স্বাভাবিক জোয়ারে বিষখালী নদীর পানি প্রবেশ করে তলিয়ে যাচ্ছে প্রায় হাজার হাজার হেক্টর আবাদী জমি। এতে কৃষকরা ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন।

উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমাদুল হক মনির বলেন, উপজেলাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি এ বেড়িবাঁধ নির্মাণের। বাঁধটি নির্মাণ করে জনসাধারণকে নিরাপদে রাখা সরকারের দায়িত্ব। একজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে এটি নির্মাণের জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
সর্বস্বত্ত্ব © দৈনিক শতকন্ঠ - ২০২১ কর্তৃক সংরক্ষিত।
Theme Customized By BreakingNews