1. admin@dainikshatakantha.com : dainikshatakantha :
বৃহস্পতিবার, ২২ জুলাই ২০২১, ১১:১৯ পূর্বাহ্ন

ঝালকাঠিতে করোনা উপসর্গ নিয়ে মুক্তিযোদ্ধাসহ দুইজনের মৃত্যু, ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ২০ জন আক্রান্ত

  • প্রকাশিত : সোমবার, ২২ জুন, ২০২০
  • ৫৬৫ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার
ঝালকাঠিতে করোনা উপসর্গ নিয়ে এক মুক্তিযোদ্ধাসহ দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার দুপুরে শহরের পশ্চিম চাঁদকাঠি এলাকার বাসিন্দা মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক পৌর কমিশনার তোফাজ্জেল হোসেনের (৭৪) মৃত্যু হয়। তিনি ৫ দিন ধরে জ্বর, শ্বাসকষ্ট ও বুকে ব্যাথায় ভুগছিলেন। সোমবার (২২ জুন) সকালে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে তাকে ভর্তি করা হলে দুপুরে তিনি মারা যান। ওই হাসপাতালেই তাঁর নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এদিকে নলছিটি উপজেলায় করোনা উপসর্গ নিয়ে আলমগীর হোসেন (৫৮) নামে এক রাজমিস্ত্রির মৃত্যু হয়েছে। রবিবার সন্ধ্যায় পৌরসভার সূর্য্যপাশা এলাকার বাড়িতে তাঁর মৃত্যু হয়। তিনি গত ১০ দিন ধরে জ্বর, সর্দি, কাশি, গলা ব্যাথা ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন বলে তাঁর পরিবার জানায়। স্বাস্থ্য বিভাগ তাঁর নমুনা সংগ্রহ করেছে।
এদিকে ঝালকাঠিতে গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ২০ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। জেলায় এখন পর্যন্ত ১৪৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৬ জন এবং সুস্থ হয়েছে ৫২জন।
আক্রান্তরা হলেন-ঝালকাঠির শহরের রোনালস রোডের বাসিন্দা মহিরুল ইসলাম (৫২), সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের কর্মচারি মোঃ রাজু (২৭), সদর হাসপাতালের চিকিৎক জ্যোতিস শিকদার (৪০), কমলনন্দী (৫০), বাহের রোড এলাকার মনোজ বড়াল(৩৫), পালবাড়ি এলাকার রিনা বেগম (৩৫), ভিআইপি এলাকার হাসান (৩৫), সদরের মমতাজ নাসরিন (৫২), রমনাতপুর গ্রামের হালিমা খাতুন (৩৭), নলছিটি উপজেলার পাওতা গ্রামের জোবায়ের আলম (৩২), নলছিটি স্বাস্থ্য কম্পপ্লেক্সের ডা. জাবেদ ইমরান (৩৫), স্বাস্থ্য কর্মী অঞ্জনা রানী (৫২), অনিক দাস (২৬), সত্য রঞ্জন বর্ধন (৬০), মোয়াজ্জেম হোসনে (৩৫), রাজাপুর উপজেলার কানুদাসকাঠি গ্রামের মোবারেক খান(৬০), রফিকুল ইসলাম(৫২), রাজাপুর স্বাস্থ্য কম্পপ্লেক্সের ডা. মাহজাবিন আহম্মেদ (২৫), কাঁঠালিয়ার আমুয়ার নজরুল ইসলাম সিকদার (৫০), মহিমরুল ইসলাম(৩৫)।
এনিয়ে ঝালকাঠি জেলার ৪টি উপজেলার মধ্যে সদর উপজেলায় ৫০জন, নলছিটি উপজেলায় ৪৩ জন, রাজাপুর উপজেলায় ৩৩ জন ও কাঁঠালিয়া উপজেলায় ১৯ জন। ঝালকাঠি জেলায় সোমবার পর্যন্ত ১৪৬১ জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানে হয়েছে এবং এর মধ্যে ১২৮৮ জনের রিপোর্ট এসেছে, এদের মধ্যে ১৪৫ জনের রিপোর্ট পজেটিভ ও ১১৪৩ জনের নেগেটিভ রিপোর্ট এসেছে। জেলায় ১০৬ দিনে এ পর্যন্ত ১২৯৬ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে ছিল। তাদের মধ্যে ১২২১ জন ছাড়পত্র নিয়ে চলে গেছেন। হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে ৬৯ জন। ঝালকাঠির সিভিল সার্জন (ভারপ্রাপ্ত) ডা. আবুয়াল হাসান এ তথ্য জানিয়েছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
সর্বস্বত্ত্ব © দৈনিক শতকন্ঠ - ২০২১ কর্তৃক সংরক্ষিত।
Theme Customized By BreakingNews