1. admin@dainikshatakantha.com : dainikshatakantha :
রবিবার, ০১ অগাস্ট ২০২১, ০৬:০৩ পূর্বাহ্ন

নলছিটিতে মৎস্য খামারীকে হয়রানির অভিযোগ

  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ১৮ আগস্ট, ২০২০
  • ১৯৭ বার পড়া হয়েছে
মৎস্য খামারীকে হয়রানি
ঝালকাঠি: সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন নলছিটি উপজেলার বিন্দুঘোষ গ্রামের জামাল হোসেনের স্ত্রী হালিমা বেগম।

স্টাফ রিপোর্টার
ঝালকাঠির নলছিটিতে জামাল হোসেন নামে এক মৎস্য খামরীকে ‘মিথ্যা অপহরণ ও হত্যাচেষ্টার মামলায় আসামি করে হয়রানির অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। সোমবার সকালে ঝালকাঠি প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে জামাল হোসেনের স্ত্রী হালিমা বেগম এ অভিযোগ করেন। মামলার পর থেকে প্রায় এক মাস পালিয়ে বেড়াচ্ছেন জামাল হোসেন। ফলে তাঁর স্ত্রী চার সন্তান নিয়ে বিপাকে পরেছেন।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে হালিমা বেগম জানান, নলছিটি উপজেলার কুশঙ্গল ইউনিয়নের বিন্দুঘোষ গ্রামের নূর ইসলামের কাছ থেকে ৫ বছরের জন্য জমি লিজ নিয়ে মৎস্য খামার করেন জামাল হোসেন। ওই জমি নিয়ে নূর ইসলামের সঙ্গে স্থানীয় ছোহবার শরীফের বিরোধ চলছিল। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে মারামারি হয়। এ ঘটনায় দুই পক্ষই থানায় মামলা করে। জামাল হোসেন কারো পক্ষে না থাকা সত্তেও ছোহরাব শরীফের ছেলে আল আমিন শরীফকে মিথ্যা অপহরণ ও হত্যাচেষ্টার ঘটনা সাজিয়ে গত ২০ জুলাই নলছিটি থানায় মামলা করা হয়। ওই মামলায় নিরাপরাধ জামাল হোসেনকেও আসামি করে হয়রানি করা হচ্ছে। জামাল হোসেন প্রায় এক মাস ধরে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। এতে চার ছেলে মেয়ে নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন তাঁর স্ত্রী। মিথ্যা মামলা থেকে জামাল হোসেনকে অব্যহতি প্রদানের দাবি জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে। সংবাদ সম্মেলনে জামাল হোসেনের ভাই বাবুল হাওলাদারসহ পরিবারের লোকজন উপস্থিত ছিলেন।
হালিমা বেগম বলেন, স্থানীয় দুই পক্ষের মধ্যে জমি নিয়ে বিরোধ আছে। আমার স্বামী কোন পক্ষের লোকই নয়। কিন্তু ছোহরাব শরীফ তাঁর পুত্রবধূ রূপা বেগমকে দিয়ে আমার স্বামীর নামে একটি মিথ্যা মামলা করেছে। আমি সন্তানদের নিয়ে খুব কষ্টে আছি। পুলিশের ভয়ে আমার স্বামী কোথায় পালিয়ে বেড়াচ্ছে, তাও জানি না। পুলিশ সুপার মহোদয় একজন নারী, আমি তার কাছে অনুরোধ করছি, আমার নির্দোষ স্বামীকে এই মামলা থেকে যেন মুক্ত করা হয়।
এ ব্যাপারে নলছিটি থানার ওসি মো. শাখাওয়াত হোসেন জানান, মামলাটি তদন্ত করা হচ্ছে। নির্দোষ কাউকে হয়রানি করা হবে না।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
সর্বস্বত্ত্ব © দৈনিক শতকন্ঠ - ২০২১ কর্তৃক সংরক্ষিত।
Theme Customized By BreakingNews